ঠোঁট গোলাপি এবং ঠোঁটের কালো দাগ দূর করার উপায়

মানুষের দিকে প্রথম যেদিকে প্রথম নজর যায় সেটি হল চোখ এর পরেই রয়েছে মুখ। আর মুখের সৌন্দর্য নির্ভর করে ঠোঁট ও দাঁতের উপর। অতিরিক্ত প্রসাধনী ব্যবহার কিংবা অযত্নের কারনে এই বিশেষ অঙ্গটি তার সৌন্দর্য হাড়িয়ে ফেলে। আমাদের মধ্যে সবাই গোলাপি ঠোঁট পছন্দ করেন কিন্তু খুব কম সংখ্যক মানুষই আছেন যারা নিয়মিত ঠোঁটের যত্ন নিয়ে থাকে। তবে কিছু কিছু মানুষের ঠোঁট জন্মগতভাবে কালচে। তবে নিয়মিত যত্নে ও ঘরোয়া প্রতিকার ব্যবহার করে কালচে ঠোঁট গোলাপি করা সম্ভব। প্রিয় পাঠক আজকের লেখাজুড়ে আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো কালচে ঠোঁট গোলাপি করার উপায় সম্পর্কে। পাশাপাশি থাকছে ঠোঁটের কালো দাগ দূর করার উপায় এবং ঠোঁট গোলাপি করার কিছু ক্রিমের নাম। তো কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

ঠোঁট গোলাপি এবং ঠোঁটের কালো দাগ দূর করার উপায়ঃ

দুধের সর এবং মধু

ঠোঁট গোলাপি করার প্রাচীনতম এবং অন্যতম কার্যকরী পদ্ধতি এটি। দুধের সর এবং মধু মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করে ঠোঁট ম্যাসাজ করুন। দিনে ২-৩ বার এটি ব্যবহার করতে পারেন। তবে বেশি সময় বা জোরে ম্যাসাজ করা যাবে না। নিয়মিত ব্যবহারে আপনার ঠোঁটে গোলাপি আভা চলে আসবে।

লেবু ও মধু

মধুর বহুমাত্রিকগুনের কথা আমরা কমবেশি সবাই জানি। নিয়মিত লেবুর রস এবং মধু ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি ঠোঁটের কালো দাগ দূর করতে পারেন। এক চামচ মধু এবং অরধেক লেবুর রস ভালো করে মিশিয়ে নিন। লেবু ও মধুর মিশ্রণটি ঠোঁটে লাগান এবং এক ঘণ্টা রাখুন। এর পর পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি আপনার ঠোঁটে কালচে ভাব দূর করার পাশাপাশি ঠোঁটের ত্বককে ময়শ্চারাইজ করবে।

দুধ এবং হলুদ

রূপচর্চায় দুধ এবং হলুদের বহুমাত্রিক ব্যবহার রয়েছে। এক চা চামচ দুধের সাথে এক চিমটি পরিমান হলুদ নিয়ে পেস্টের মতো মিশিয়ে নিন। হলুদ ও দুধের এই মিশ্রণটি ঠোঁটে লাগান। ১০ মিনিট পর পরিষ্কার পানি দিয়ে ঠোঁট ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে এটি আপনার ঠোঁটের উজ্জলতা বাড়ানোর পাশাপাশি ঠোঁটকে গোলাপি করবে এবং ঠোঁটের কালচে ভাব দূর করবে।

এলোভেরা

এলোভেরা বা ঘৃতকুমারী রুপচর্চার অন্যতম বহুল পরিচিত উপাদান। এলোভেরা ক্ষতিগ্রস্থ স্কিনের জন্য খুব দারুনভাবে কাজ করে। ঠোঁটের কালচে দাগ দূর করতে এবং ঠোঁট গোলাপি করতে এলোভেরার ভিতরের পিচ্ছিল অংশ ব্যবহার করুন। এছাড়া প্রসাধনীর দোকানে এলোভেরার জেল পেয়ে থাকবেন সেটিও ব্যবহার করতে পারেন। নিয়মিত ব্যবহারে এটি দারুন ফল দেয়।

সুগার স্ক্রাব

আমন্ড অয়েল, চিনি আর মধুর সাহায্যে এই সুগার স্ক্রাবটি তৈরি করতে হবে। 1:1:1 এই অনুপাতে চিনি, আমন্ড অয়েল এবং মধু মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করুন এবং আঙ্গুলের মাথায় নিয়ে আলতো করে ঠোঁট ম্যাসাজ করুন। সপ্তাহে দুই দিন নিয়মিত এই মিশ্রণটি ব্যবহার করুন। এটি আপনার ঠোঁট গোলাপি করার পাশাপাশি ঠোঁটের ত্বকের ময়েশ্চার ধরে রাখার পাশাপাশি ঠোঁটের শুষ্কতা দূর করবে এবং ঠোঁটের কাচলেভাব দূর করবে।

লেবুর রস ও গোলাপের পাপড়ি

সামান্য লেবুর রস ১ চা চামচ পরিমান গোলাপের পাপড়ি গুড়ো এবং ২ থেকে ২ ফোঁটা অলিভ অয়েল নিন এবং ভালোভাবে মিক্স করুন। এই মিশ্রণটি ঠোঁটের উপর আলতো করে ম্যাসাজ করুন। ১০ মিনিট পর সামান্য কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটি আপনার ঠোঁটের কালচে ভাব দূর করে দারুন একটি কালার দিবে।

এছাড়াও বর্তমানে অনেক সিরাম পাওয়া যায় যেগুলো ঠোঁটের কালচে দাগ দূর করতে দারুন কাজ করে। তবে এগুলতো অনেক সময় পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকতে পারে। বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে এবং আপনার স্কিনের ধরন অনুসারে লিপ সিরাম ব্যবহার করতে পারেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top