হেনা প্যাক ও পাউডার ব্যবহারের নিয়ম, উপকারিতা

হেনা আমাদের কাছে খুবই পরিচিত একটি জিনিস। তবে কারো কারো কাছে হেনা শব্দটি অপরিচিতও লাগতে পারে তারা নিশ্চয়ই মেহেদী পাতা চিনতে ভুল করবেন না। জি প্রিয় পাঠক, মেহেদী পাতাকে হেনা বলা হয়। আর মেহেদী পাতার গুঁড়াকে হেনা পাউডার বলা হয়ে থাকে। মুলত ইংরেজিতে মেহেদী পাতাকে হেনা বলা হয়। অনেকে একে হিন্নাও বলে থাকে। মুলত ত্বক, চুল, নখ ইত্যাদির যত্ন ও রঙিন করার জন্য এই হেনা ব্যবহার করা হয়। প্রাচীন কাল থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত, বিশেষ করে চুলের যত্নে হেনা সমানভাবে জনপ্রিয়। এছাড়াও বিয়ের সময় হেনা বা মেহেদী না হলেতো এক প্রকার চলেই না।

প্রিয় পাঠক, আজকের লেখা জুড়ে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করবো চুলের যত্নে হেনা প্যাক তৈরি, ব্যবহারের নিয়ম, কোন ধরনের হেনা ভালো, উপকারিতা, অপকারিতা বা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত।

মেহেদী পাতা বা হেনার উপকারিতা

স্কিনে বা চুলে যেকন প্রসাধনী ব্যবহারের আগে সেটির উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে ভালো ভাবে জেনে নেওয়া উচিত। প্রথমেই চলুন চুলের যত্নে হেনা প্যাকের উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-

চুলের স্বাস্থ্যের উন্নতি

চুল আমাদের শরীরের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। চুলের যত্নে অনেকেই হাজার হাজার টাকা খরচ করে তবে সঠিকভাবে বা সময় সল্পতার কারনে সেটি নিয়মিত করা কঠিন হয়ে পড়ে। ড্যামেজ চুলের যত্নে হেনা প্যাক বা মেহেদী পাতা দারুন কাজ করে। আপনার চুলে যদি স্ক্যাল্পের মাত্রা অতিরিক্ত হয়ে থাকে তাহলে আপনার জন্য হেনা একটি দারুন সলিউশন হতে পারে।

খুশকি দূর করে

খুশকি আমাদের কাছে একটি খুবই পরিচিত শব্দ। অনেকেই খুশকি দূর করতে বাজারে থাকা বিভিন্ন ব্রান্ডের শ্যাম্পু থেকে শুরু করে তেল সব কিছু দিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করা শেষ কিন্তু ভালো কোন ফলাফল পাচ্ছনে না। তারা একবার হেনা প্যাক ব্যবহার করে দেখতে পারেন। এতে রয়েছে অ্যান্টি ফাঙ্গাল এবং অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল কনটেন্ট আমাদের চুল এবং স্ক্যাল্পের যত্নে বিশেষ উপকারি। সপ্তাহে একবার হেনা প্যাক ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি খুশকি থেকে মুক্তি পেতে পারেন খুব সহজেই।

চুল লম্বা করতে হেনা বিশেষ উপকারি

যদিও চুল লম্বা কিংবা খাটো হওয়া সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক। তবে নিয়মিত যত্ন নিলে এই অবস্থার কিছুটা উন্নতি হতে পারে। হেনা বা মেহেদী পাতা চুলের পি এইচ লেভেল ব্যালেন্স করে আমাদের চুলে স্ক্যাল্পের অতিরিক্ত মাত্রায় তেল প্রোডাকশন কমায়। পাশাপাশি এতে থাকা প্রাকৃতিক উপাদানগুলো আমাদের চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

পাকা চুলে রঙ করতে হেনার উপাকারিতা

চুল পাকতে বয়স লাগে না। যে কোন বয়সে চুল পেকে যেতে পারে। আর পাকা চুল কালার করতে আমরা অনেকেই অনেক ধরনের কালার ব্যাবহার করে থাকি। তনে বাজারে যেসব কালার পাওয়া যায় সেগুলোর বেশিরভাগই বিভিন্ন ক্যামিকেল উপাদান দিয়ে তৈরি। পাকা চুল কালার করতে হেনা বা মেহেদী পাতার ব্যবহার বেশ পুরাতন। সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক হওয়ায় কোন প্রকার স্বাস্থ্যগত ঝুকি নেই।

চুলের যত্নে হেনা প্যাক তৈরি ও ব্যবহারের নিয়ম

আমাদের চুলের যত্নে হেনা প্যাক তৈরি ও ব্যবহার করার নিয়ম খুবই সহজ। প্রিয় পাঠক, চলুন এপর্যায়ে হেন বা মেহেদী প্যাক তৈরি ও চুলে হেনা করার পদ্ধতি বা ব্যবহারের নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক-

ডিম, হেনা পাউডার ও টক দই দিয়ে হেনা প্যাক

প্রথমেই একটি পাত্রে একটি ডিমের সাদা অংশ আলদা করে নিন। ডিমের সাদা অংশের সাথে পরিমাণ মতো হেনা পাতা গুঁড়া বা পাউডার নিন। ডিমের সাদা অংশ ও হেনা পাউডারের সাথে পরিমান মতো টকদই মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করে নিন। ব্রাশ বা হাতের সাহায্যে আপনার চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত ভালোভাবে লাগিয়ে নিন এবং ৫০ থেকে ৬০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর একটি ভালো মানের শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালোভাবে পরিষ্কার করে ফেলুন।

নারিকেল তেল ও হেনা দিয়ে হেনা প্যাক

কি অবাক হলেন তাই না? আপনি যদি আপনার চুলের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি ও চুল পড়া কমাতে চান তাহলে এটি আপনার জন্য একটি দারুন সমাধান হতে পারে। প্রথমেই এক কাপ পরিমান কাচা পরিষ্কার মেহেদী পাতা নিন। বেলেন্ডার দিয়ে বা বেটে পেস্ট বানিয়ে নিন। এই পেস্ট দিয়ে ছোট ছোট বল তৈরি কউন এবং সামান্য রোদ বা বাতাস চলাচল করে এমন স্থানে রেখে দিন। শুঁকিয়া যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। একটি প্যানে ৫০০ মিলি নারিকেল তেল নিয়ে মাঝারি তাপে গরম করে এর মধ্যে আগে তৈরি করে রাখা হেনা পাতার বলগুলো দিন। চুলার আঁচ সামান্য বাড়িয়ে কিছু সময় ফুটিয়ে নিন। এ পর্যায়ে একটি পরিষ্কার পাত্র বা বোতলে হেনা ও তেলের মিশ্রণটি ছেঁকে নিন। তেল ঠাণ্ডা হলে এই তেল আপনার স্ক্যাল্প ও চুলে মালিশ করুন।

মালিশ শেষে ২৫ থেকে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন এবং ভালো মানের শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে ২ থেকে ৩ দিন হেনা ও নারিকেল তেলের প্যাক ব্যবহার করুন। আশা করছি ভালো ফলাফল পাবেন।

হেনা সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রশ্ন ও উত্তর

হেনা পাউডার কি?

মেহেদী পাতাকে ইংরেজিতে হেনা বলা হয়। এটি একটি সপুষ্পক উদ্ভিদ যা কিনা চুল ত্বক, নখ এবং পশুর চামড়া ও পশম রঙিন করার কাজে ব্যবহৃত হয়। অনেকে একে একটি ঔষধি উদ্ভিদ হিসেবেও বিবেচনা করে থাকে।

হেনা পাউডারের দাম কত?

বাজারে বিভিন্ন ব্রান্ডের হেনা পাউডার ও হেনা প্যাক কিনতে পাওয়া যায়। পরিমান ও ব্রান্ড ভেদে দাম আলাদা আলাদা হয়ে থাকে। বাংলাদেশের বাজারে ২৫০ গ্রাম হেনা পাউডারের দাম ২০০ থেকে ৩০০ টাকা। এছাড়াও বাংলাদেশের বাজারে কাঁচা মেহেদী পাতাও কিনতে পাওয়া যায়। যেগুলো শুঁকিয়ে বাসায় বসে পাউডার বানিয়েও ব্যবহার করা যায়।

হেনা পাউডার কোথায় পাওয়া যায়?

বিভিন্ন প্রসাধনী সামগ্রীর দোকান, মুদি দোকান ও সুপার শপে হেনা পাউডার কিনতে পাওয়া যায়। এছাড়াও বাংলাদেশের বিভিন্ন অনলাইন শপেও হেনা পাউডার কিনতে পাওয়া যায়।

হেনা প্যাক ব্যবহারের ক্ষতিকর দিক কি?

হেনা বা মেহেদী পাতা একটি প্রাকৃতিক উপাদান। তাই এটি ব্যবহারে কোন ক্ষতি বা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। তবে বাজারে যে সকল হেনা পাউডার কিনতে পাওয়া যায় সেগুলোতে ক্যামিকেল ব্যবহার করা হতে পারে। তাই বিশ্বস্ত ও ভালো ব্রান্ড থেকে প্রসাধনী সামগ্রি কেনার চেষ্টা করুন।

সর্বশেষ

প্রিয় পাঠক, আশা করছি। হেনা সম্পর্কিত আপনার সকল প্রশ্নের উত্তর পেয়ে গেছেন। আমাদের লেখা নিয়ে আপনার কোন মতামত কিংবা পরামর্শ থাকলে লিখতে পারেন আমাদের কাছে। সব সময় কাঁচা মেহেদী পাতা গুকিয়ে সেটি দিয়ে হেনা পাউডার বানিয়ে ব্যবহার করার চেষ্টা করুন।

আরও পড়ুনঃ তালমাখনা খাওয়ার উপকারিতা

Scroll to Top