সেরা ১০টি চুল কাটার মেশিন এবং দাম

বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে গ্রুমিং এর ব্যাপারে এখন আগের তুলনায় অনেক বেশি সচেতন। বাংলাদেশের বাজারে বিভিন্ন ব্রান্ডের বিভিন্ন মডেল ও ফিচারের ট্রিমার বা চুল কাটার মেশিন কিনতে পাওয়া যায়। আপনি যদি কম দামে ভালো মানের একটি ট্রিমার বা চুল কাটার মেশিন খুঁজে থাকেন তাহলে আপনি সঠিক যায়গায় এসেছেন। আজকের লেখাজুড়ে আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো বাংলাদেশের বাজারে পাওয়া যায় এমন ১০টি ভালো মানের ট্রিমার সম্পর্কে। তো কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক-

১) Xiaomi MI Grooming Kit Pro

শাওমি সম্পর্কে নতুন করে বলার কিছু নেই। বিশ্ব বিখ্যাত শাওমি চুল কাটার মেশিনের বাজারেও বেশ সুনাম কুড়িয়েছে। বাজারে শাওমির যতগুলো মডেলের ট্রিমার বা চুল কাটার মেশিন পাওয়া যায় সেগুলোর মধ্যে শাওমি গ্রুমিং কিট প্রো অন্যতম। শাওমি গ্রুমিং কি এর আপডেটেড ভার্সন হচ্ছে শাওমি গ্রুমিং কিট প্রো। একবার ফুল চার্জে এই ট্রিমারটি একটানা ৯০ মিনিট ব্যবহার করা যায়। ট্রিমারটি ফুল চার্জ হতে সময় লাগবে ২ ঘণ্টা। সাথে থাকছে আলাদা আলাদা ট্রিমিং রেঞ্জ ০.৫ মিমি থেকে শুরু করে ২০মিমি আকারে চুল কিংবা দাড়ি কাটা যাবে। বাচ্চা থেকে শুরু করে সকল বয়সের মানুষের চুল কিংবা দাড়ি কাটা যাবে এই মেশিনটি দিয়ে। অনেক লো নয়েজ এবং ওয়াটারপ্রুফ হওয়ায় পানিতে ভিজলেও নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা নেই। শাওমির মতে মাত্র ৫ মিনিট চার্জ করে একটানা ১২ মিনিট ব্যবহার করা যাবে। উন্নত মানের স্টেইনলেস ষ্টীল ও প্লাস্টিক দিয়ে দিয়ে তৈরি এই ট্রিমারটি বেশ মজবুতও বটে।

২) VGR V-937

বাংলাদেশের বাজারে যতগুলো ট্রিমার পাওয়া যায় সেগুলোর মধ্যে খুব কম ট্রিমার বা দাড়ি চুল কাটার মেশিন রয়েছে যেগুলো একবার ফুল চার্জে ৫০০ মিনিট বা ৫ ঘণ্টা ব্যবহার করা যায়। আপনি জেনে অবাক হবেন যে VGR V-937 ট্রিমারটি একবার ফুল চার্জে ৫০০ মিনিট পর্যন্ত ব্যবহার করা যাবে। আর চার্জ হতে সময় লাগবে মাত্র ৪ ঘণ্টা। এই ট্রিমারটিতে রয়েছে একটি ২০০০এমএএইচ এর পাওয়ারফুল ব্যাটারি। উন্নত মানের স্টেইনলেস ষ্টীল ও প্লাস্টিক দিয়ে তৈরি এই দাড়ি চুল কাটার মেশিনটি দেখতেও বেশ চমৎকার। এর বক্সের ডিজাইন দেখলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন। প্রিমিয়াম কোয়ালিটির এই ট্রিমারটির বক্স দেখলে আপনার মনে হবে এটি কোন ফ্লাগশিপ মোবাইল ফোনের বক্স। আপনি চোখ বন্ধ করে গিফট হিসেবেও এটি উপহার দিতে পারেন আপনার বন্ধু, ভাই কিংবা কাছের কাউকে।

৩) Kemei KM-809a

আপনি যদি সেলুন বা বিউটি পার্লারের জন্য একটি প্রফেশনাল ট্রিমার কেনার কথা চিন্তা করেন তাহলে আপনার জন্য Kemei Km-809a এই ট্রিমারটি। বাংলাদেশের বেশিরভাগ সেলুন ও পার্লারে এই হেয়ার ট্রিমার বা চুল দাড়ি কাটার মেশিনটি দেখতে পাওয়া যায়। একসময় Kemei KM-2066 প্রফেশনাল ট্রিমারটি বেশ জনপ্রিয় থাকলেও দামে কম এবং আকর্ষণীয় ডিজাইন থাকার কারনে এই ট্রিমারটি বেশ জনপ্রয়তা লাভ করেছেন। একবার ফুল চার্জে ৪ ঘণ্টা ব্যবহার করা যাবে এই চুল কাটার মেশিনটি। ফুল চার্জ হতে সময় লাগবে মাত্র ২ ঘণ্টা। এতে থাকছে একটি ডিসপ্লে ফলে কতোটুকু চার্জ হলো সেটি দেখতে পাওয়া যাবে। Kemei Km-809a এর সাথে থাকছে ৪ টি ক্লিপ, চার্জার, একটি ক্লিনিং ব্রাশ ও তেল। বাংলাদেশের বাজারে Kemei এর প্রায় কয়েক ডজন মডেলের ট্রিমার ও শেভার কিনতে পাওয়া যায়।

৪) VGR V-393

আপনি কি একটি ভালো মানের শেভার খুঁজছেন? যেটি দিয়ে আপনার দাড়ি বা আন্ডারআরম, বিকিনি এরিয়া বা বডির লোম বা চুল কাটতে পারবেন। তাহলে আপনার জন্য VGR V-393 ফেস, বডি, আন্ডারআরম শেভার। একবার ফুল চার্জে ৯০ মিনিট ব্যবহার করা যাবে এবং একবার ফুল চার্জ হতে সময় লাগবে ৯০ মিনিট। এই শেভারটি ওয়াটারপ্রুফ ফলে পানিতে ভিজলে নষ্ট হওয়ার শঙ্কা নেই। আপনি যদি মেয়েদের জন্য একটি শেভার কেনার কথা ভাবেন তাহলেও আপনি এই শেভারটি পছন্দ করতে পারেন। আকর্ষণীয় ডিজাইন সহজেই আপনার নজর কাড়বে। সাথে থাকে আলাদা আলাদা ৩ টি ক্লিপ, চার্জার ক্যাবল, একটি হেড এবং একটি ক্লিনিং ব্রাশ। এতে থাকছে একটি ৫০০এমএএইচ ব্যাটারি।

৫) ENCHEN Boost

শাওমির সাব ব্রান্ড MI সবারই চেনা। ENCHEN Boost ট্রিমারটি বাজারে বেশ কয়েক বছর আগে আসলেও এর চারজিং ব্যাকআপ এবং ডিজাইন ও ফিচারের কারনে এখনও সমানভাবে জনপ্রিয়। এছাড়াও এর দামও বাজারে থাকা একই ফিচার সমৃদ্ধ অন্যান্য ট্রিমার বা দাড়ি চুল কাটার মেশিনের থেকে বেশ কম। একবার ফুল চার্জে ২ ঘণ্টা বা ১২০ মিনিট ব্যবহার করা যাবে এবং একবার ফুল চার্জ হতে সময় লাগবে মাত্র ৯০ মিনিট। এছাড়াও এটি টাইপসি চার্জার সাপোর্ট করে তাই আপনি সহজেই আপনার ফোনের চার্জার দিয়ে চার্জ করে নিতে পারবেন। লো নয়েজ হওয়ার কারনে বাচ্চাদের জন্য খুবই উপযোগী একটি ট্রিমার এটি। খুবই লাইটওয়েট এই চুলকাটার মেশিনটি এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যাতে আপনি একটানা অনেক সময় হাতে নিয়ে কাজ করতে পারেন।

৬) Kemei KM-2600

আমরা ইতিমধ্যে Kemei KM-2600 নিয়ে আপনাদের সামান্য কিছু ধারনা দিয়েছে। বাংলাদেশের মাঝারি বা বড় আকারের যেসকল সেলুনগুলো আছে সেগুলোর শতকরা ৮০% সেলুন ও জেন্টস পার্লারে এই চুল দাড়ি কাটার মেশিনটি দেখতে পাওয়া যায়। পাওয়ারফুল ব্যাটারি এবং চার্জিং ব্যাকআপ থাকার কারনে মুলত এটি সকলের নিকট বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। এই মেশিনটির সবচেয়ে আকর্ষণী ফিচার হচ্ছে এটি একই সাথে চার্জে লাগিয়ে কিংবা চার্জে করে তারপর এটি ব্যবহার করতে পারবেন। Kemei KM-2600 এ থাকছে একটি শক্তিশালী ২২০০ এমএএইচ ব্যাটারি। যা কিনা সচারাচর খুব কম দাড়ি চুল কাটার মেশিনে দেখা যায়। একবার ফুল চার্জে Kemei KM-2600 একটানা ৯০ মিনিট পর্যন্ত ব্যবহার করা যাবে, ফলে কারেন্ট না থাকলেও চুল বা দাড়ি কাটা নিয়ে দুশ্চিন্তা করতে হবে না। সাথে থাকছে ৪ টি ক্লিপ।

৭) Xiaomi MI 2c

শাওমি সর্বশেষ বাজারে যে চুল ও দাড়ি কাটার মেশিন নিয়ে এসছে সেটি হচ্ছে Xiaomi MI 2c. বাজারে আসার সাথে সাথেই এই ট্রিমারটি বেশ সারা ফেলে দিয়েছে। একবার ফুল চার্জে ৯০ মিনিট ব্যবহার করা যাবে এই মেশিনটি। এতে থাকছে ৪০টি আলাদা আলাদা সেটিং। দাড়ি কিংবা চুল কাটার জন্য আপনার পছন্দ মতো সাইজ বেছে নিতে কোন সম্যসা হবে না। এটি এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যাতে সহজেই হাতের মধ্যে ধরে রাখা যায় এবং হাতে ভালো করে আটকে থাকে। পাশাপাশি ওয়াটারপ্রুফ হওয়ার কারনে পানিতে ভিজলে কোন সমস্যা নেই।

8) HTC AT-538

আপনি যদি বাজেটের মধ্যে একটি ভালো মানের হেয়ার বা বিয়ারড ট্রিমার কেনার কথা ভাবেন বিশেষ করে ৫০০-৭০০ টাকার মধ্যে তাহলে আপনার জন্য HTC AT-538 ট্রিমার। বাজারে ৫০০ টাকা বা এর আশেপাশে যতগুলো ট্রিমার পাওয়া যায় তাদের মধ্যে এটি দারুন। যদিও একবার ফুল চার্জ হতে ৮ ঘণ্টা সময় লাগে তবে এর ডিজাইন এবং পারফর্মেন্স আপনাকে মুগ্ধ করবে। এর ডিজাইন দেখে আপনার মনেই হবে না যে এর দাম এতো কম। একবার ফুল চার্জে ৩.০ থেকে ৫০ মিনিট চলবে। সাথে থাকছে ৪ টি ক্লিপ, তেল, ক্লিনিং ব্রাশ এবং চারজিং ক্যাবল। সরাসরি চার্জ হবে থাকছে না কোন এডাপটার।

৯) Vintage T9

বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি বিক্রিত দাড়ি চুল কাটার মেশিনগুলোর মধ্যে Vintage T9 অন্যতম। দামে কম আকর্ষণীয় ডিজাইন আর পারফর্মেন্সের কারনে খুবই অল্প সময়ের মধ্যে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে এই ডিভাইসটি। একবার ফুল চার্জে ৩০-৪০ মিনিট ব্যবহার করা যায়। সাথে থাকবে একটি তেল, ব্রাশ, চার্জার এবং ৪ টি ক্লিপ। মেটাল ও স্টেইনলেস ষ্টীল দিয়ে তৈরি ট্রিমারটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করার কারনে বাজারে অনেক কপি প্রোডাক্ট চলে এসছে। তাই জেনে শুনে তারপর অর্ডার করুন।

১০) Philips BT3221/15

কি অবাক হলেন নাকি? এতো জনপ্রিয় ব্রান্ডের ট্রিমারের নাম কোন আগে বলি নি। যাহোক Philips নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নেই। বাংলাদেশের ইলেক্ট্রিনিক বাজারে ফিলিপসের বেশ সুনাম রয়েছে। একবার ফুল চার্জে ৯০ মিনিট চলে এই চুল কাটার মেশিনটি। আর থাকছে ফাস্ট চারজিং একবার ফুল চার্জ হতে সময় লাগবে মাত্র ৬০ মিনিট। ফিলিপসের অন্যান্য ট্রিমারগুলোর বিশেষ করে কম দামের গুলোতে চার্জ হতে প্রায় ৮ থেকে ১৬ ঘণ্টা সময় লাগে। থাকছে ২০ টি আলাদা সেটিং, পাওয়ারফুল ব্যাটারি। টাইটানিয়াম ব্লেড দিয়ে তৈরি হওয়ায় সংবেদনশীল স্কিনের জন্য বিশেষ উপকারি।

https://trendoclock.com/wp-content/uploads/2024/01/trimmer-banner.png

দাড়ি চুল কাটার পাশাপাশি একই সাথে অন্যান্য কাজগুলো ও যদি করা যায় তাহলে কেমন হয়? নিশ্চয়ই ভালো তাই না! জি আপনি যদি এমন একটি ট্রিমার কেনার কথা ভাবেন যেটি দিয়ে নাক, কান, দাড়ি, চুল

Scroll to Top