অনলাইনে ভিসা চেক করার নিয়ম – (১০০% কার্যকরী)

আপনি যদি দেশের বাহিরে অর্থাৎ অন্য কোন দেশে চাকরি, চিকিৎসা কিংবা ভ্রমণ করার পরিকল্পনা করে থাকেন তাহলে পাসপোর্টের পর দ্বিতীয় যে জিনিসটি আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ সেটি হচ্ছে আপনি যে দেশে যেতে চাচ্ছেন সে দেশের ভিসা পাওয়া। আর ভিসা পাওয়ার পর আপনি যে ধরনের ভিসার জন্য আবেদন করেছেন ঠিক সে ধনের ভিসা পেয়েছেন কিনা কিংবা আপনার ভিসা আসল নাকি নকল সেটি চেক করাও খুবই গুরুত্বপূর্ণ। খুশির খবর হচ্ছে এখন কোন এম্বাসি কিংবা ভিসা এজেন্সির সাহায্য ছাড়াই আপনার হাতে থাকা মোবাইল কিংবা কম্পিউটারের সাহায্যে অনলাইনে ভিসা চেক করতে পারবেন।

আজকের লেখাজুড়ে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করবো অনলাইনে সঠিক উপায়ে বিভিন্ন দেশের ভিসা চেক করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত। তো কথা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক।

সরকারি ওয়েবসাইট ব্যাবহার করে ভিসা চেক

বর্তমানে বিশ্বের কিছু কিছু দেশ ছাড়া প্রায় সকল দেশের ভিসা চেক করার জন্য সরকারি ওয়েবসাইট রয়েছে। আর এসকল ওয়েবসাইটের সাহায্য ভিসা চেক করা যায়। আর আমার মতে এটি সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য পদ্ধতি। আপনি যে দেশে যেতে চাচ্ছেন বা যে দেশের ভিসার জন্য আবেদন করেছেন সে দেশের সরকারি ওয়েবসাইটের সাহায্যে আপনার ভিসাটি আসল কিনা নকল কিংবা আপনি যে ধরনের ভিসার জন্য আবেদন করেছেন সে ধরনের ভিসা পেয়েছেন কিনা সেটি চেক করতে পারেন।

সরকারি ওয়েবসাইটের সাহায্য ভিসা চেক করার নিয়ম

প্রথমে যে দেশের ভিসা চেক করতে চান সে দেশের নাম এবং সাথে ভিসা চেক (Visa Status Check) লিখে গুগলে সার্চ করুন। যেমন- সৌদি ভিসা চেক, মালয়েশিয়া ভিসা চেক, ইন্ডিয়ান কিংবা কুয়েতের ভিসা চেক এগুলো ইংরেজিতে লিখে গুগলে সার্চ করুন। এরপর আপনার সামনে অনেক সাজেশন দেখাবে সেখান থেকে সেই দেশের সরকারি ডোমেইন যুক্ত অথবা দূতাবাসের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন। অনলাইনে চেক করতে প্রয়োজনীয় তথ্য (যেমন- পাসপোর্ট নাম্বার, জাতীয়তা) দিয়ে সাবমিট বা চেক বাটনে ক্লকি করুন। অনেক সাইটে ক্যাপচা চেক কর করতে বলতে পারে।

থার্ড পার্টি ভিসা চেকার

বিভিন্ন দেশের সরকারি ওয়েবসাইট এবং ভিসা এজেন্সির পাশাপাশি বিভিন্ন থার্ড পার্টি অনলাইন টুলস বা ভিসা চেকার ব্যবহার করেও খুব সহজে অনলাইনে ভিসা চেক করতে পারেন। বিভিন্ন অনাইন ভিসা চেকারের মধ্যে ভিসাএইচকিউ (VisaHQ), আইভিসা (iVisa), পাসপোর্ট ইনডেক্স (Passport Index) অন্যতম।

অন্যান্য উৎস

দুতাবাস বা কনস্যুলেটের ওয়েবসাইটঃ আপনি যে দেশের দুতাবাসে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন তাদের ওয়েবসাইটগুলো চেক করতে পারেন। অনেক সময় এই ওয়েবসাইটগুলোতে ভিসার আবেদনের স্থিতি পরীক্ষা করার জন্য ভিসা সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য, আবেদন পত্র এবং নির্দেশাবলী প্রদান করা হয়।

ভিসা চেক করার সুবিধা

বাংলাদেশ সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভিসা জালিয়াতি চক্র ও মানব পাচার চক্র রয়েছে। যা বিভিন্ন ধরনের প্রলোভন দেখিয়ে বিশেষ করে মোটা অংকের বেতনে চাকরির আশ্বাস দিয়ে ও উন্নত দেশে পাঠানোর প্রলোভন দেখিয়ে ভুয়া বা নকল এবং এক ধরনের ভিসা পরিবর্তে অন্য ধরনের ভিসা দিয়ে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়ে থাকে। অনলাইনে ভিসা চেক করার মধ্যমে আপনার পাসপোর্টে লাগানো ভিসা কি ধরনের এবং সেটি আসল কিনা সেটি চেক করতে পারেন। ফলে প্রতারিত হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।

সর্বশেষ

প্রিয় পাঠক, আকের মতো এখানেই শেষ করছি। বিদেশ ভ্রমণের বা কাজের জন্য যাওয়ার আগে অবশ্যই আপনার ভিসা চেক করে নিন। আমাদের লেখা নিয়ে আপনার কোন জিজ্ঞাসা কিংবা মতামত থাকলে লিখতে পারেন আমাদের কাছে।

Scroll to Top